1. masudkhan89@yahoo.com : admin :
  2. mahabub.mk1@gmail.com : Mahbub Khan Akash : Mahbub Khan Akash
  3. kdalim142@gmail.com : ডালিম খান : ডালিম খান
শনিবার, ২২ জানুয়ারী ২০২২, ০২:৩২ অপরাহ্ন

লক্ষ্মীপুর-২ পাপুলের আসনে বিজয়ী আ.লীগের নয়ন

সাংবাদিকের নাম
  • আপডেট সময় : সোমবার, ২১ জুন, ২০২১
  • ৭৩ দেখেছেন

 

লক্ষ্মীপুর-২ (রায়পুর ও সদরের একাংশ) আসনে উপনির্বাচনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী অ্যাডভোকেট নুরউদ্দিন চৌধুরী নয়ন বেসরকারিভাবে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়েছেন। সোমবার সকাল ৮টা থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত ১৩৬টি কেন্দ্রে ইলেক্ট্রনিক ভোটিং মেশিনের (ইভিএম) মাধ্যমে ভোটগ্রহণ চলে। এতে আওয়ামী লীগের প্রার্থী পেয়েছেন এক লাখ ২২ হাজার ৫৪৭ ভোট। তাঁর নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী জাতীয় পার্টির (জাপা) প্রার্থী শেখ ফায়েজ উল্যাহ শিপন লাঙল প্রতীকে পেয়েছে এক হাজার ৮৮৬ ভোট।নয়ন জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও শিপন কেন্দ্রীয় জাতীয় পার্টির সদস্য।

উপনির্বাচনের দায়িত্বপ্রাপ্ত রিটার্নিং কর্মকর্তা ও কুমিল্লা অঞ্চলের আঞ্চলিক নির্বাচন কর্মকর্তা দুলাল তালুকদার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, ‘কোথাও কোনো অপ্রীতিকর ঘটনা ছাড়া নির্বাচন শেষ হয়েছে। বৃষ্টির কারণে ভোটার উপস্থিতির ক্ষেত্রে কিছুটা বাধা হয়েছে। নির্বাচন অনুযায়ী জাতীয় পার্টি প্রার্থী শিপন জামানত হারিয়েছেন।’

প্রসঙ্গত, নির্বাচনে গৃহীত ভোটের আট ভাগের একভাগ ভোট না পেলে প্রার্থী জামানত হারান বলে গণ্য হন। সেই হিসেবে জাপা প্রার্থী শিপন এক হাজার ৮৮৬ ভোট পেয়ে জামানত হারিয়েছেন। আজ সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত বৃষ্টি থাকায় ভোটকেন্দ্রগুলোতে আশানুরুপ ভোটার উপস্থিতি দেখা যায়নি।

সূত্র জানায়, ১৯৯৬ ও ২০০১ সালে এ আসন থেকে সাবেক প্রধানমন্ত্রী ও বিএনপির চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়েছিলেন। এরপর দুবারই তিনি এ আসনের সংসদ সদস্য পদ থেকে পদত্যাগ করেন। ১৯৯৬ সালে উপনির্বাচনে আওয়ামী লীগের যুব ও ক্রীড়া বিষয়ক সম্পাদক হারুনুর রশিদ সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন। ২০০১ সালের উপনির্বাচনে জেলা বিএনপির সাবেক সভাপতি আবুল খায়ের ভূঁইয়া সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন। এরপর এ আসনে ২০০৮ সালে বিএনপি প্রার্থী নির্বাচিত হন। ২০১৪ সালে জোটগত কারণে জাতীয় পার্টির মোহাম্মদ নোমান সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন। ২০১৮ সালে জাতীয় পার্টির নোমান ফের জোটগতভাবে মনোনয়ন পান। কিন্তু অদৃশ্য কারণে তিনি নির্বাচন থেকে সরে দাঁড়ান। পরে স্বতন্ত্র প্রার্থী কাজী শহিদ ইসলাম পাপুল স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতাদের সহযোগিতায় সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন। সেই পাপুল গত বছরের ৬ জুন কুয়েতে ঘুষ কেলেঙ্কারী ও মানবপাচার মামলায় গ্রেপ্তার হন। পরে কুয়েতের আদালত তাকে সাত বছর কারাদণ্ড দেন। এতে আসনটি শূন্য ঘোষণা করে উপনির্বাচন দেওয়া হয়

সামাজিক যোগাযোগ এ শেয়ার করুন

একই বিভাগের আরও সংবাদ
© এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা বা ছবি অনুমতি ছাড়া নকল করা বা অন্য কোথাও প্রকাশ করা সম্পূর্ণ বেআইনি। সকল স্বত্ব মুক্ত সংবাদ কর্তৃক সংরক্ষিত
Developer By Zorex Zira