ঢাকা ০৬:৪৮ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ০২ মার্চ ২০২৪, ১৯ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::

১০ বছরেও কমিটি নেই শিবপুর সরকারি শহীদ আসাদ কলেজ ছাত্রলীগের

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০৬:১৭:০৯ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ৮ এপ্রিল ২০২২
  • / ৫৯৯ বার পড়া হয়েছে

শিবপুর প্রতিনিধি: নরসিংদীর শিবপুর সরকারি শহীদ আসাদ কলেজ শাখা ছাত্রলীগের সর্বশেষ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয় ২০১১ সালের ২০ মার্চ। এক বছর মেয়াদে কমিটিতে সভাপতি আতিকুল ইসলাম ও সাধারণ সম্পাদক ফেরদৌস সরকার নির্বাচিত হয়।
এরপর ১০ বছর নতুন কমিটি না হওয়ায় নেতৃত্ব শূন্যতা, সাংগঠনিক স্থবিরতা তৈরি হওয়ায় ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন ছাত্রলীগের নেতারা। সেই সঙ্গে নতুন কমিটির দাবিও জানিয়েছেন তারা।

শিবপুর সরকারি শহীদ আসাদ কলেজ শাখা ছাত্রলীগের কয়েকজন নেতা জানিয়েছেন, কমিটি গঠনকালে কলেজ শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি আতিকুল ইসলাম ও সাধারণ সম্পাদক ফেরদৌস সরকার যথাক্রমে বিএ দ্বিতীয় ও তৃতীয় বর্ষের ছাত্র ছিলেন। সভাপতি ২০১৪ সালে এবং সাধারণ সম্পাদক ২০১৩ সালে বিএ পাস করেন। দুজনেরই ছাত্রত্ব শেষ।

সভাপতি ২০১৫ সালে ও সাধারণ সম্পাদক ২০১৪ সালে বিয়ে করেন। বর্তমানে সভাপতির ৬ বছরের একটি ছেলে সন্তান রয়েছে। আর সাধারণ সম্পাদক দুই সন্তানের পিতা।

এরই মধ্যে আতিকুল ইসলাম সভাপতি থাকা অবস্থায় ৫ বছর কোরিয়ায় প্রবাস জীবন অতিবাহিত করেছেন। বর্তমানে শহীদ আসাদ কলেজের নিয়মিত শিক্ষার্থী সংখ্যা ১০ হাজার ৯৭ জন। কলেজটিতে একাদশ, দ্বাদশ, তিনটি ডিগ্রি, ১১ বিষয়ে অনার্স ও দুটি বিষয়ে মাস্টার্স কোর্সে ছাত্রলীগের কোনো কমিটি নেই।

কলেজ শাখা ছাত্রলীগের নিয়মিত কার্যক্রমের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক উভয়েই অনুপস্থিত। নেতারা মনে করেন, এসব কারণে ছাত্রলীগের সাংগঠনিক ভিত্তি দুর্বল হয়ে পড়েছে। দীর্ঘদিন সম্মেলন এবং নতুন কমিটি না হওয়ায় নেতৃত্বের শূন্যতা তৈরি হয়েছে। পাশাপাশি নেতৃত্বে পরিবর্তন না হওয়ায় অনেক মেধাবি ও সাংগঠনিক মনোভাবের শিক্ষার্থীরা যারা গঠনমূলক রাজনীতির মাধ্যমে ইতিবাচক পরিবর্তন আনতে এবং বঙ্গবন্ধুন স্বপ্ন সোনার বাংলা গড়ে তুলতে কাজ করতে আগ্রহী তারা বঞ্চিত হচ্ছেন। জরুরি ভিত্তিতে সম্মেলনের মাধ্যমে নতুন কমিটির গঠন করে নতুন নেতৃত্বের দাবি ছাত্রলীগের নেতাকর্মীদের।

এ বিষয়ে ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা জেলা ও কেন্দ্রীয় নির্বাহী সংসদের কাছে একাধিকবার লিখিতভাবে আবেদন করেছেন।

কলেজের ব্যবস্থাপনা বিভাগের তৃতীয় বর্ষের ছাত্র ছাত্রলীগ নেতা শাওন খান বলেন‘আমরা দীর্ঘদিন ধরে ছাত্রলীগ করে আসতেছি। কিন্তু পরিচয় দেয়ার মতো কোনো পদ নেই। ১০ বছর ধরে সম্মেলন না হওয়ায় নতুন নেতৃত্ব তৈরি হচ্ছে না। বিচ্ছিন্নভাবে আমরা দলীয় প্রোগ্রামগুলো করে আসতেছি। এতে সাংগঠনিকভাবে আমরা অনেক পিছিয়ে পড়ছি। তাই দ্রুত নতুন কমিটি আসা দরকার।’

নরসিংদী জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি হাসিবুল হাসান মিন্টু বলেন, ‘আমি দায়িত্ব নেয়ার পর থেকে মহামারি করোনা শুরু হয়। তাই দীর্ঘদিন ধরে সম্মেলন করা সম্ভব হয়নি। যেহেতু বর্তমানে করোনা পরিস্থিতি স্বাভাবিক পর্যায়ে আমরা দ্রুত সময়ের মধ্যে সম্মেলনের মাধ্যমে নতুন কমিটি দেয়ার প্রস্তুতি নিচ্ছি

নিউজটি শেয়ার করুন

আপলোডকারীর তথ্য

Mahbub Khan Akash

"মুক্ত সংবাদ" আপনার মত প্রকাশে সদা জাগ্রত। আমরা কাজ করি সত্যের অন্বেষণে।
ট্যাগস :

১০ বছরেও কমিটি নেই শিবপুর সরকারি শহীদ আসাদ কলেজ ছাত্রলীগের

আপডেট সময় : ০৬:১৭:০৯ পূর্বাহ্ন, শুক্রবার, ৮ এপ্রিল ২০২২

শিবপুর প্রতিনিধি: নরসিংদীর শিবপুর সরকারি শহীদ আসাদ কলেজ শাখা ছাত্রলীগের সর্বশেষ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয় ২০১১ সালের ২০ মার্চ। এক বছর মেয়াদে কমিটিতে সভাপতি আতিকুল ইসলাম ও সাধারণ সম্পাদক ফেরদৌস সরকার নির্বাচিত হয়।
এরপর ১০ বছর নতুন কমিটি না হওয়ায় নেতৃত্ব শূন্যতা, সাংগঠনিক স্থবিরতা তৈরি হওয়ায় ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন ছাত্রলীগের নেতারা। সেই সঙ্গে নতুন কমিটির দাবিও জানিয়েছেন তারা।

শিবপুর সরকারি শহীদ আসাদ কলেজ শাখা ছাত্রলীগের কয়েকজন নেতা জানিয়েছেন, কমিটি গঠনকালে কলেজ শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি আতিকুল ইসলাম ও সাধারণ সম্পাদক ফেরদৌস সরকার যথাক্রমে বিএ দ্বিতীয় ও তৃতীয় বর্ষের ছাত্র ছিলেন। সভাপতি ২০১৪ সালে এবং সাধারণ সম্পাদক ২০১৩ সালে বিএ পাস করেন। দুজনেরই ছাত্রত্ব শেষ।

সভাপতি ২০১৫ সালে ও সাধারণ সম্পাদক ২০১৪ সালে বিয়ে করেন। বর্তমানে সভাপতির ৬ বছরের একটি ছেলে সন্তান রয়েছে। আর সাধারণ সম্পাদক দুই সন্তানের পিতা।

এরই মধ্যে আতিকুল ইসলাম সভাপতি থাকা অবস্থায় ৫ বছর কোরিয়ায় প্রবাস জীবন অতিবাহিত করেছেন। বর্তমানে শহীদ আসাদ কলেজের নিয়মিত শিক্ষার্থী সংখ্যা ১০ হাজার ৯৭ জন। কলেজটিতে একাদশ, দ্বাদশ, তিনটি ডিগ্রি, ১১ বিষয়ে অনার্স ও দুটি বিষয়ে মাস্টার্স কোর্সে ছাত্রলীগের কোনো কমিটি নেই।

কলেজ শাখা ছাত্রলীগের নিয়মিত কার্যক্রমের সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক উভয়েই অনুপস্থিত। নেতারা মনে করেন, এসব কারণে ছাত্রলীগের সাংগঠনিক ভিত্তি দুর্বল হয়ে পড়েছে। দীর্ঘদিন সম্মেলন এবং নতুন কমিটি না হওয়ায় নেতৃত্বের শূন্যতা তৈরি হয়েছে। পাশাপাশি নেতৃত্বে পরিবর্তন না হওয়ায় অনেক মেধাবি ও সাংগঠনিক মনোভাবের শিক্ষার্থীরা যারা গঠনমূলক রাজনীতির মাধ্যমে ইতিবাচক পরিবর্তন আনতে এবং বঙ্গবন্ধুন স্বপ্ন সোনার বাংলা গড়ে তুলতে কাজ করতে আগ্রহী তারা বঞ্চিত হচ্ছেন। জরুরি ভিত্তিতে সম্মেলনের মাধ্যমে নতুন কমিটির গঠন করে নতুন নেতৃত্বের দাবি ছাত্রলীগের নেতাকর্মীদের।

এ বিষয়ে ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা জেলা ও কেন্দ্রীয় নির্বাহী সংসদের কাছে একাধিকবার লিখিতভাবে আবেদন করেছেন।

কলেজের ব্যবস্থাপনা বিভাগের তৃতীয় বর্ষের ছাত্র ছাত্রলীগ নেতা শাওন খান বলেন‘আমরা দীর্ঘদিন ধরে ছাত্রলীগ করে আসতেছি। কিন্তু পরিচয় দেয়ার মতো কোনো পদ নেই। ১০ বছর ধরে সম্মেলন না হওয়ায় নতুন নেতৃত্ব তৈরি হচ্ছে না। বিচ্ছিন্নভাবে আমরা দলীয় প্রোগ্রামগুলো করে আসতেছি। এতে সাংগঠনিকভাবে আমরা অনেক পিছিয়ে পড়ছি। তাই দ্রুত নতুন কমিটি আসা দরকার।’

নরসিংদী জেলা ছাত্রলীগের সভাপতি হাসিবুল হাসান মিন্টু বলেন, ‘আমি দায়িত্ব নেয়ার পর থেকে মহামারি করোনা শুরু হয়। তাই দীর্ঘদিন ধরে সম্মেলন করা সম্ভব হয়নি। যেহেতু বর্তমানে করোনা পরিস্থিতি স্বাভাবিক পর্যায়ে আমরা দ্রুত সময়ের মধ্যে সম্মেলনের মাধ্যমে নতুন কমিটি দেয়ার প্রস্তুতি নিচ্ছি