ঢাকা ০১:৩৪ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ০৪ মার্চ ২০২৪, ২০ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::

মুক্ত সংবাদ

মাধবদীতে পূর্ব শত্রুতার জেরে একজনকে পিটিয়ে জখম

মুক্ত সংবাদ
  • আপডেট সময় : ১১:২২:৫৩ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ৮ ডিসেম্বর ২০২৩
  • / ৫৫৮ বার পড়া হয়েছে

স্টাফ রিপোর্টার:

নরসিংদীর মাধবদীতে পূর্ব শত্রুতার জের ধরে জজ মিয়া (৬০) নামের এক ব্যক্তিকে পিটিয়ে জখম করেছে প্রতিপক্ষরা। রবিবার (০৩ ডিসেম্বর) আনুমানিক রাত ১১ টার দিকে এই ঘটনা ঘটে। জজ মিয়া নুরালাপুরের মৃত তোতা মিয়ার ছেলে।

আহত জজ মিয়া বলেন, নুরালাপুর ইউপি চেয়ারম্যান আরিফ হোসেনের নির্দেশে নুরালাপুরের মৃত শরীফের ছেলে রাজিব, হাসেম মাস্টারের ছেলে হাসান, শামসু মোল্লার ছেলে আনু গং আমাকে রাত ১১ টার দিকে জ্ঞানের বাজার থেকে চোখ বেঁধে অপহরণ করে আরিফ চেয়ারম্যানের বাগান বাড়িতে নিয়ে যায়। ঐখানে নিয়ে বেদম পিটিয়ে শীরে বিভিন্ন স্থানে নীলা ফুলা রক্তাক্ত জখম করে এবং একটি চোখে প্রচন্ড আঘাত করে আমাকে ছেড়ে দেয়। তারপর আমি নরসিংদী লায়ন চক্ষু হাসপাতালে ভর্তি হই।

তিনি আরও বলেন, মাধবদী থানায় মামলা করতে গেলে আমার মামলা নিচ্ছে না। এখন আমাকে বিভিন্ন হুমকি-ধামকি দিচ্ছে। থানায় অথবা আদালতে মামলা করলে আমাকে প্রাণে মেরে ফেলবে। এমতাবস্থায় আমি ও আমার পরিবার নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছি।

এ ব্যাপারে বক্তব্য নিতে রাজিব গংদের সাথে যোগাযোগ করার চেষ্টা করেও তাদেরকে পাওয়া যায়নি।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপলোডকারীর তথ্য
ট্যাগস :

মুক্ত সংবাদ

মাধবদীতে পূর্ব শত্রুতার জেরে একজনকে পিটিয়ে জখম

আপডেট সময় : ১১:২২:৫৩ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ৮ ডিসেম্বর ২০২৩

স্টাফ রিপোর্টার:

নরসিংদীর মাধবদীতে পূর্ব শত্রুতার জের ধরে জজ মিয়া (৬০) নামের এক ব্যক্তিকে পিটিয়ে জখম করেছে প্রতিপক্ষরা। রবিবার (০৩ ডিসেম্বর) আনুমানিক রাত ১১ টার দিকে এই ঘটনা ঘটে। জজ মিয়া নুরালাপুরের মৃত তোতা মিয়ার ছেলে।

আহত জজ মিয়া বলেন, নুরালাপুর ইউপি চেয়ারম্যান আরিফ হোসেনের নির্দেশে নুরালাপুরের মৃত শরীফের ছেলে রাজিব, হাসেম মাস্টারের ছেলে হাসান, শামসু মোল্লার ছেলে আনু গং আমাকে রাত ১১ টার দিকে জ্ঞানের বাজার থেকে চোখ বেঁধে অপহরণ করে আরিফ চেয়ারম্যানের বাগান বাড়িতে নিয়ে যায়। ঐখানে নিয়ে বেদম পিটিয়ে শীরে বিভিন্ন স্থানে নীলা ফুলা রক্তাক্ত জখম করে এবং একটি চোখে প্রচন্ড আঘাত করে আমাকে ছেড়ে দেয়। তারপর আমি নরসিংদী লায়ন চক্ষু হাসপাতালে ভর্তি হই।

তিনি আরও বলেন, মাধবদী থানায় মামলা করতে গেলে আমার মামলা নিচ্ছে না। এখন আমাকে বিভিন্ন হুমকি-ধামকি দিচ্ছে। থানায় অথবা আদালতে মামলা করলে আমাকে প্রাণে মেরে ফেলবে। এমতাবস্থায় আমি ও আমার পরিবার নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছি।

এ ব্যাপারে বক্তব্য নিতে রাজিব গংদের সাথে যোগাযোগ করার চেষ্টা করেও তাদেরকে পাওয়া যায়নি।