ঢাকা ১২:৩৩ পূর্বাহ্ন, সোমবার, ০৪ মার্চ ২০২৪, ২০ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::

শিবপুরে পাক হানাদার মুক্ত দিবস পালিত

মুক্ত সংবাদ
  • আপডেট সময় : ১০:৩৪:১৪ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ৮ ডিসেম্বর ২০২৩
  • / ৫৫৪ বার পড়া হয়েছে

শিবপুর প্রতিনিধি :

নরসিংদীর শিবপুর আজ ৮ ডিসেম্বর পাক হানাদার মুক্ত দিবস। ১৯৭১ সালের ডিসেম্বরে তৎকালীন শিবপুর থানার ‘পুটিয়া’র যুদ্ধই ছিল সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ এবং সফল মুক্তিযোদ্ধা পাক হানাদার বাহিনীর সম্মুখ যুদ্ধ। এদিনের যুদ্ধে পাক হানাদার বাহিনী কোন রকমে জান বাঁচিয়ে পুটিয়া থেকে পালিয়ে যায়।

তৎকালীন নারায়ণগঞ্জ জেলাধীন শিবপুর থানা পূর্ব থেকেই ছিল অত্যন্ত রাজনৈতিক সচেতন এলাকা। বলতে গেলে শিবপুর ছিল মুক্তিযোদ্ধাদের অভয়ারন্য। যুদ্ধের শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত মুক্তিযোদ্ধারা পাক হানাদার বাহিনীকে রেখে ছিল তটস্থ। দেশের সকল এলাকার মতো নরসিংদী জেলার শিবপুর থানায়ও ডিসেম্বর মাসে পাক বাহিনীর উপর মুক্তিযোদ্ধাদের আক্রমন তীব্রতর হয়।উপজেলার পুটিয়া সংলগ্ন ক্যাম্পে চুর্তুমুখী আক্রমন চালায় মুক্তিযোদ্ধারা। প্রচন্ড গোলাগুলির পর মুক্তিযোদ্ধারা দখল করে নেয় পাকবাহিনীর ক্যাম্প।
৮ ডিসেম্বর পাকহানাদার বাহিনীরা নরসিংদীর অভিমুখে পালিয়ে যায় ও ঐ দিনে মুক্ত হয় শিবপুর ।

এ উপলক্ষে শিবপুরে পালিত হয় পাক হানাদারমুক্ত দিবস।
শুক্রবার (৮ ডিসেম্বর) সকালে মুক্তিযোদ্ধা সংসদ সন্তান কমান্ডের উদ্যোগে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন করা হয়।পরে মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্স ভবনে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শাহ্ মো: সজিব এর সভাপতিত্বে এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।
এতে উপস্থিত ছিলেন,শিবপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা মোহসিন নাজির,সাধারণ সম্পাদক আলহাজ্ব শামসুল আলম ভূইয়া রাখিল, উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সাবেক কমান্ডার আজিজুর রহমান খান ভুলু,ডেপুটি কমান্ডার বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল মোতালেব খান,বীর মুক্তিযোদ্ধা বেলায়েত হোসেন, মুক্তিযোদ্ধা সংসদ সন্তান কমান্ডের আহ্বায়ক বিপ্লব চক্রবর্তী, যুগ্ন আহবায়ক ফজলে রাব্বি খান, সদস্য সচিব অপু সারওয়ার খান প্রমুখ।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপলোডকারীর তথ্য

শিবপুরে পাক হানাদার মুক্ত দিবস পালিত

আপডেট সময় : ১০:৩৪:১৪ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ৮ ডিসেম্বর ২০২৩

শিবপুর প্রতিনিধি :

নরসিংদীর শিবপুর আজ ৮ ডিসেম্বর পাক হানাদার মুক্ত দিবস। ১৯৭১ সালের ডিসেম্বরে তৎকালীন শিবপুর থানার ‘পুটিয়া’র যুদ্ধই ছিল সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ এবং সফল মুক্তিযোদ্ধা পাক হানাদার বাহিনীর সম্মুখ যুদ্ধ। এদিনের যুদ্ধে পাক হানাদার বাহিনী কোন রকমে জান বাঁচিয়ে পুটিয়া থেকে পালিয়ে যায়।

তৎকালীন নারায়ণগঞ্জ জেলাধীন শিবপুর থানা পূর্ব থেকেই ছিল অত্যন্ত রাজনৈতিক সচেতন এলাকা। বলতে গেলে শিবপুর ছিল মুক্তিযোদ্ধাদের অভয়ারন্য। যুদ্ধের শুরু থেকে শেষ পর্যন্ত মুক্তিযোদ্ধারা পাক হানাদার বাহিনীকে রেখে ছিল তটস্থ। দেশের সকল এলাকার মতো নরসিংদী জেলার শিবপুর থানায়ও ডিসেম্বর মাসে পাক বাহিনীর উপর মুক্তিযোদ্ধাদের আক্রমন তীব্রতর হয়।উপজেলার পুটিয়া সংলগ্ন ক্যাম্পে চুর্তুমুখী আক্রমন চালায় মুক্তিযোদ্ধারা। প্রচন্ড গোলাগুলির পর মুক্তিযোদ্ধারা দখল করে নেয় পাকবাহিনীর ক্যাম্প।
৮ ডিসেম্বর পাকহানাদার বাহিনীরা নরসিংদীর অভিমুখে পালিয়ে যায় ও ঐ দিনে মুক্ত হয় শিবপুর ।

এ উপলক্ষে শিবপুরে পালিত হয় পাক হানাদারমুক্ত দিবস।
শুক্রবার (৮ ডিসেম্বর) সকালে মুক্তিযোদ্ধা সংসদ সন্তান কমান্ডের উদ্যোগে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা নিবেদন করা হয়।পরে মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্স ভবনে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শাহ্ মো: সজিব এর সভাপতিত্বে এক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।
এতে উপস্থিত ছিলেন,শিবপুর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা মোহসিন নাজির,সাধারণ সম্পাদক আলহাজ্ব শামসুল আলম ভূইয়া রাখিল, উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সাবেক কমান্ডার আজিজুর রহমান খান ভুলু,ডেপুটি কমান্ডার বীর মুক্তিযোদ্ধা আব্দুল মোতালেব খান,বীর মুক্তিযোদ্ধা বেলায়েত হোসেন, মুক্তিযোদ্ধা সংসদ সন্তান কমান্ডের আহ্বায়ক বিপ্লব চক্রবর্তী, যুগ্ন আহবায়ক ফজলে রাব্বি খান, সদস্য সচিব অপু সারওয়ার খান প্রমুখ।