ব্রেকিং নিউজ ::
শিবপুরে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে বঙ্গবন্ধু স্মৃতিচারণ ও দোয়া মাহফিল শিবপুরে ১৫ আগষ্ট জাতীয় শোক দিবস উদযাপন উপলক্ষে যুবলীগের প্রস্তুতি সভা শিবপুরে ব্যবসায়ীকে ষড়যন্ত্রমূলক মিথ্যা মামলা দেওয়ায় এলাকাবাসীর প্রতিবাদ সভা শিবপুর উপজেলা প্রশাসনের আয়োজনে বঙ্গমাতার  ৯২তম জন্মবার্ষিকী পালন জৈন্তাপুরে প্রাইভেট কার নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে পিতা ও শিশু কন্যার মৃত্যু,আহত ৩ শিবপুরে পুটিয়া ইউনিয়ন আওয়ামী কৃষকলীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন অনুষ্ঠিত শিবপুরে হরিহরদী হাই স্কুল এন্ড কলেজের পক্ষ থেকে এমপি মোহনকে সংবর্ধনা শিবপুরে বিএনপির সাবেক মহাসচিব মান্নান ভূঁইয়ার ১২তম মৃত্যু বার্ষিকী পালন বৃক্ষরোপনে জাতীয় পুরস্কার পেল কাজী মফিজ উদ্দিন উচ্চ বিদ্যালয় মহাত্মা গান্ধী গোল্ডেন অ্যাওয়ার্ড পেলেন আলহাজ্ব মাহফুজুল হক টিপু
খুলনায় বিচারকের সই জাল করে কোটি টাকা আত্মসাৎ

খুলনায় বিচারকের সই জাল করে কোটি টাকা আত্মসাৎ

 

 

খুলনার চিফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের বিচারক সুনন্দ বাগচীর সই জাল করে কোটি টাকা আত্মসাৎ করেছেন আদালতের দুই কর্মচারী। এ ঘটনায় সোমবার তাদের বিরুদ্ধে মামলা করেছেন দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) সমন্বিত জেলা কার্যালয় খুলনার উপ-পরিচালক মো. নাজমুল হাসান। অভিযুক্ত দু’জন হলেন- আদালতের জারিকারক এম এম নাহিদুল ইসলাম ও নাজমুল হাসান। তাদের আটক করেছে দুদক।

দুদক খুলনার উপ-পরিচালক মো. নাজমুল হাসান জানান, ২০১৯ সালের ১ সেপ্টেম্বর থেকে ২০২১ সালের ২৩ মার্চ পর্যন্ত এসব ভুয়া বিল জমা দিয়ে প্রায় ১ কোটি ২ লাখ ২৪ হাজার ৪০ টাকা আত্মসাৎ করা হয়। এ কাজে ওই দুই কর্মচারীর সঙ্গে হিসাবরক্ষণ কার্যালয় ও জনতা ব্যাংকের কিছু কর্মকর্তা জড়িত রয়েছে। প্রতিটি ক্ষেত্রে বিচারকের সই কম্পিউটারে স্ক্যান করে বিলে সংযোজন করা হয়েছে। মামলার পর বিষয়টি নিয়ে অধিকতর তদন্ত শুরু হয়েছে।

মামলায় উল্লেখ করা হয়েছে, চিফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের জারিকারক এম এম নাহিদুল ইসলাম ও নাজমুল হাসান ভুয়া বিল ও ভাউচার তৈরি বিচারকের সই জাল করে খুলনা বিভাগীয় হিসাবরক্ষণ কর্মকর্তার কার্যালয়ে জমা দিতেন। বিচারকের আনুষাঙ্গিক খাতে (কোড নং-৩২৫৫১০৫) বরাদ্দ না থাকার পরও বিভাগীয় হিসাবরক্ষণ অফিসের অসাধু কর্মকর্তা-কর্মচারীর সহযোগিতায় ২০১৯ সালের ১ সেপ্টেম্বর থেকে ২০২১ সালের ২৩ মার্চ পর্যন্ত এভাবে প্রায় ১ কোটি ২ লাখ ২৪ হাজার ৪০ টাকার বিল ছাড় করেন।

এতে আরও বলা হয়, ওই টাকা চিফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের নামে খোলা জনতা ব্যাংক লিমিটেডে খুলনার খানজাহান আলী রোড শাখায় জমা হয়। পরে আসামি নাহিদুল ইসলাম ও নাজমুল হাসান বিচারকের ভুয়া সই তৈরি করে টাকাগুলো তাদের ব্যক্তিগত হিসাবে স্থানান্তর করেন। এরপর আসামিরা ব্যক্তিগত ব্যাংক হিসাব থেকে চেকের মাধ্যমে অর্থ তুলে তা আত্মসাৎ করেন।

সামাজিক যোগাযোগ এ শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published.

© সকল স্বত্ব www.muktasangbad.com অনলাইন ভার্শন কর্তৃক সংরক্ষিত