ঢাকা ০৫:৫৫ অপরাহ্ন, রবিবার, ০৩ মার্চ ২০২৪, ২০ ফাল্গুন ১৪৩০ বঙ্গাব্দ
সংবাদ শিরোনাম ::

শিবপুরে ভূমিদস্যু হেকিম ও করিম গং এর অত্যাচারে গ্রাম ছাড়া হানিফ মোল্লার পরিবার

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ০৮:৩৬:১৫ অপরাহ্ন, সোমবার, ৭ অগাস্ট ২০২৩
  • / ১৬৮৫ বার পড়া হয়েছে

শিবপুর প্রতিনিধি:

শিবপুর উপজেলার চক্রধা ইউনিয়নের দোপাত্বর গ্রামের হানিফ মোল্লার পরিবার সর্বহারা হেকিম মোল্লা ও করিম মোল্লা গংদের অত্যাচারে গ্রাম ছাড়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে।
সরেজমিনে গিয়ে জানা যায়, হানিফ মোল্লার পিতা হাসিম মোল্লা মৃত্যু বরন করলে হেকিম মোল্লা সম্পত্তির লোভে হানিফ মোল্লা ও তার ভাইকে গ্রাম ছাড়া করে,শুধু তাই নয় তাদের ক্রয়কৃত সম্পত্তিও দখল করে নেয় এবং জোরপূর্বক ভোগদখল করতে থাকে হেকিম ও করিম মোল্লা গং।দীর্ঘদিন বাড়িছাড়া অবস্থায় অতি কষ্টে বড় হয়ে গ্রামে এসে নিজেদের সম্পত্তির দখল চায় হানিফ।এতেই বাঁধে বিপত্তি, এলাকার গন্যমান্য ব্যক্তিদের নিয়ে বারবার দরবার করেও হেকিম মোল্লার কাছ থেকে সম্পত্তির দখল বুঝে নিতে পারেনি হানিফের পরিবার।এমনকি তাদের ক্রয়কৃত সম্পত্তি দখল করার উদ্দেশ্যে লাগানো শতাধিক ফলজ ও বনজ গাছ বিগত রবিবার (৩১ জুলাই) রাতের আধাঁরে কেটে ফেলে,যার মধ্যে ছিলো কাঠাল,লটকন,মাল্টা,মেহগনি ও কড়ই গাছসহ কলাবাগান। এতে প্রায় এক লক্ষ টাকার ক্ষতি হয় বলে জানান ভুক্তভোগী হানিফ।


এ বিষয়ে ভুক্তভোগী হানিফের স্ত্রী, চক্রধা ইউনিয়ন মহিলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আকলিমা জানান, হেকিম ও করিম গংদের আত্যাচারে আমারা দীর্ঘ দিন যাবৎ গ্রাম ছাড়া। আমাদের প্রাপ্য সম্পত্তি চাইলে আমাকে হেকিম ও তার ছেলে করিম ব্যাপক মারধর করে,আমি তাদের বিচার চাই।
চক্রধা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আবু কালাম জানান, হানিফ মোল্লার দলিল থাকা সত্বেও ২০/২৫ টি দরবার করেও কোন লাভ হয়নি। হেকিম ও করিম মোল্লা গং দরবার সালিশ মানেনা, ন্যায়বিচার মানেনা, তারা নিষিদ্ধ সর্বহারা পার্টির লোক,তারা অত্যাচারি ও ভূমি দস্যু । এ বিষয়ে স্থানীয় পল্লী চিকিৎসক নজরুল ইসলাম জানান, করিম গং অত্যাচারী লোক, তারা কারো কথা শোনেনা। হানিফ মোল্লা ও তার পরিবারের উপর জুলুম করছে আমরা একাধিক সালিশ করেছি কিন্তু তারা কাউকে মানেনা,আমরা এলাকাবাসী প্রশাসনের ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি আকর্ষণ করছি।

এ ব্যাপারে চক্রধা ইউপি চেয়ারম্যান বেনুজীর আহমেদ খান জানান,বিষয়টি আমি জেনেছি,অল্প কিছুদিনের মধ্যেই দুই পক্ষকে নিয়ে আলোচনায় বসবো,আশা করি সমস্যার সমাধান করতে পারবো।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপলোডকারীর তথ্য

Mahbub Khan Akash

"মুক্ত সংবাদ" আপনার মত প্রকাশে সদা জাগ্রত। আমরা কাজ করি সত্যের অন্বেষণে।
ট্যাগস :

শিবপুরে ভূমিদস্যু হেকিম ও করিম গং এর অত্যাচারে গ্রাম ছাড়া হানিফ মোল্লার পরিবার

আপডেট সময় : ০৮:৩৬:১৫ অপরাহ্ন, সোমবার, ৭ অগাস্ট ২০২৩

শিবপুর প্রতিনিধি:

শিবপুর উপজেলার চক্রধা ইউনিয়নের দোপাত্বর গ্রামের হানিফ মোল্লার পরিবার সর্বহারা হেকিম মোল্লা ও করিম মোল্লা গংদের অত্যাচারে গ্রাম ছাড়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে।
সরেজমিনে গিয়ে জানা যায়, হানিফ মোল্লার পিতা হাসিম মোল্লা মৃত্যু বরন করলে হেকিম মোল্লা সম্পত্তির লোভে হানিফ মোল্লা ও তার ভাইকে গ্রাম ছাড়া করে,শুধু তাই নয় তাদের ক্রয়কৃত সম্পত্তিও দখল করে নেয় এবং জোরপূর্বক ভোগদখল করতে থাকে হেকিম ও করিম মোল্লা গং।দীর্ঘদিন বাড়িছাড়া অবস্থায় অতি কষ্টে বড় হয়ে গ্রামে এসে নিজেদের সম্পত্তির দখল চায় হানিফ।এতেই বাঁধে বিপত্তি, এলাকার গন্যমান্য ব্যক্তিদের নিয়ে বারবার দরবার করেও হেকিম মোল্লার কাছ থেকে সম্পত্তির দখল বুঝে নিতে পারেনি হানিফের পরিবার।এমনকি তাদের ক্রয়কৃত সম্পত্তি দখল করার উদ্দেশ্যে লাগানো শতাধিক ফলজ ও বনজ গাছ বিগত রবিবার (৩১ জুলাই) রাতের আধাঁরে কেটে ফেলে,যার মধ্যে ছিলো কাঠাল,লটকন,মাল্টা,মেহগনি ও কড়ই গাছসহ কলাবাগান। এতে প্রায় এক লক্ষ টাকার ক্ষতি হয় বলে জানান ভুক্তভোগী হানিফ।


এ বিষয়ে ভুক্তভোগী হানিফের স্ত্রী, চক্রধা ইউনিয়ন মহিলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আকলিমা জানান, হেকিম ও করিম গংদের আত্যাচারে আমারা দীর্ঘ দিন যাবৎ গ্রাম ছাড়া। আমাদের প্রাপ্য সম্পত্তি চাইলে আমাকে হেকিম ও তার ছেলে করিম ব্যাপক মারধর করে,আমি তাদের বিচার চাই।
চক্রধা ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আবু কালাম জানান, হানিফ মোল্লার দলিল থাকা সত্বেও ২০/২৫ টি দরবার করেও কোন লাভ হয়নি। হেকিম ও করিম মোল্লা গং দরবার সালিশ মানেনা, ন্যায়বিচার মানেনা, তারা নিষিদ্ধ সর্বহারা পার্টির লোক,তারা অত্যাচারি ও ভূমি দস্যু । এ বিষয়ে স্থানীয় পল্লী চিকিৎসক নজরুল ইসলাম জানান, করিম গং অত্যাচারী লোক, তারা কারো কথা শোনেনা। হানিফ মোল্লা ও তার পরিবারের উপর জুলুম করছে আমরা একাধিক সালিশ করেছি কিন্তু তারা কাউকে মানেনা,আমরা এলাকাবাসী প্রশাসনের ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি আকর্ষণ করছি।

এ ব্যাপারে চক্রধা ইউপি চেয়ারম্যান বেনুজীর আহমেদ খান জানান,বিষয়টি আমি জেনেছি,অল্প কিছুদিনের মধ্যেই দুই পক্ষকে নিয়ে আলোচনায় বসবো,আশা করি সমস্যার সমাধান করতে পারবো।